মঙ্গলবার, ৪ অগাস্ট ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২০ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
জাপানে ৪ দেশের নাগরিক প্রবেশে কঠোর বিধিনিষেধ  » «   আমরা বরিশালের পোলা পঁচাশি টাকা তোলা  » «   অক্টোবর মাসে শ্রীলঙ্কা সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল  » «   লাতিন আমেরিকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অর্ধকোটি  » «   আফগান কারাগারে বন্দুকধারীদের হামলা নিহত বেড়ে ৩৯  » «   নর্থ কারোলিনায় আঘাত হেনেছে হারিকেন ‘ইসাইয়াস  » «   সিনহা হত্যা পুলিশের প্রতি অনাস্থা আরও বাড়িয়েছে  » «   করোনায় আক্রান্ত ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের চিফ অব স্টাফ  » «   আইপিএলে পরিষ্কার করে দিলো অস্ট্রেলিয়া ও উইন্ডিজ  » «   হাতিরঝিলে গাছে ঝুলছিল মরদেহ  » «   ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে রাজবাড়ীতে ২ জনের মৃত্যু  » «   সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত  » «   প্রীতি ফুটবল ম্যাচে বাংলাদেশের জয়  » «   সুপ্রিম কোর্ট খোলা নিয়ে ফুলকোর্ট সভা বৃহস্পতিবার  » «   পেঁয়াজ খেয়ে শত শত মানুষ অসুস্থ  » «  

১৫ কাঠা জমিজুড়ে গাঁজার বাগান

Sharing is caring!

আমার বাংলাদেশ অনলাইন ডেস্ক;; মেহেরপুরের গাংনী উপজেলায় ১৫ কাঠা জমিজুড়ে গাঁজার বাগানের সন্ধান পাওয়া গেছে। আশপাশ থেকে বোঝার কোনো উপায় নেই যে, সেখানে হচ্ছে গাঁজার চাষ।

চারপাশ বিভিন্ন গাছ-গাছালি, বাঁশঝাড় ও বেড়া দিয়ে ঘেরা। এর মধ্যেই পুলিশের নজরে আসে এই গাঁজার বাগানের। জব্দ করা হয় ১৭০টির বেশি গাঁজা গাছ।

মাদকবিরোধী অভিযানে গতকাল বুধবার রাতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) শেখ মুস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল গাঁজার বাগানটির সন্ধান পায়।

পুলিশ বলছে,  দুলাল হোসেন নামের এক মাদক ব্যবসায়ী গাংনীর মটমুড়া গ্রামে নিজ বাড়ির পাশে ১৫ কাঠা জমিতে গাঁজা আবাদ করে আসছিলেন।

সেইসঙ্গে তাঁর ছেলেমেয়ে ও স্ত্রীর সম্পৃক্ততাও রয়েছে এতে। তবে খবর পেয়েই আত্মগোপন করেছেন দুলাল। তিনি পলাতক থাকলেও তাঁর ছেলেমেয়ে ও স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে। এর আগে গতকাল রাত থেকে পুরো এলাকা ঘিরে রাখে পুলিশ।

আজ সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঘটনাস্থলে যান জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম মুরাদ আলী।

এসপি মুরাদ আলী বলেন, ‘প্রায় এক বিঘার মতো জমিতে ১৭০টি গাঁজার গাছের সন্ধান আমরা পেয়েছি। ভালোভাবে গুনলে সংখ্যাটা বাড়তেও পারে।

 

এই জায়গাটি জনৈক দুলালের। তিনি পলাতক রয়েছেন। তাঁর নামে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেছে পুলিশ।

মুরাদ বলেন, ‘ছেলে-মেয়ে ও স্ত্রীসহ দুলালের পরিবারে চার সদস্য। এই জায়গাটি চারপাশ দিয়েই ঘেরা।

বাঁশঝাড়, পাটখড়ির বেড়া ও অন্যান্য গাছপালা দিয়ে জায়গাটি এমনভাবে সুরক্ষিত করা যে, বাইরে থেকে কোনোভাবেই টের পাওয়ার উপায় নেই এবং ঢুকতে হয় উনাদের বাড়ির গেটের ভেতর দিয়ে।

এই গেট তালাবদ্ধ অবস্থায় ছিল। কেউ বাড়ির গেট দিয়ে ভেতরে ঢুকতে না পারলে কোনোভাবেই এই বাগান চিহ্নিত করা সম্ভব না।

গোপন সূত্রের ভিত্তিতে আমরা গতকাল রাতে সন্ধান পাই এবং তাৎক্ষণিকভাবে এখানে অবস্থান নিই ও জায়গাটি পুলিশ পাহারায় রাখি।’

পুলিশের এ কর্মকর্তা আরো বলেন, ‘বাইরে অন্য কোথাও তাঁদের কোনো জায়গা আছে কি না, এমন কোনো তথ্য পাইনি। তবে আমরা যদি আরো জিজ্ঞাসাবাদ করি এবং আরো কোনো তথ্য যদি থেকে থাকে, সে তথ্যগুলো পেতে সক্ষম হবো।

গাঁজার গাছগুলো কী করা হবে এবং পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে চাইলে এসপি মুরাদ বলেন, ‘গাছগুলো আলামত হিসেবে আমরা জব্দ করব এবং যথারীতি মামলার যে প্রক্রিয়া সে মামলা আমরা রুজু করব।

(আমার বাংলাদেশ/রুআহমেদ// )

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

Sharing is caring!

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -