মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
গোলাপগঞ্জে হাঁসের সঙ্গে এ কেমন শত্রুতা!  » «   মির্জা ফখরুল সিলেটে আসছেন ২৪ সেপ্টেম্বর  » «   জগন্নাথপুরে রাধারমণ উৎসব পালনে প্রস্তুতি সভা  » «   সিলেটে ঝাড়ু হাতে ৩ ব্রিটিশ এমপি  » «   সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগের শোক  » «   সরকারি দলের ছাত্র ও যুবকদের রন্ধে রন্ধে দুর্নীতি প্রবেশ করেছে : কর্নেল অলি  » «   সততা ও দক্ষতাই ব্যবসার মূলধন :ভিপি শামীম  » «   লন্ডনের সাপ্তাহিক জনমতের সাংবাদিক বিমানবন্দরে সংবর্ধিত  » «   সিলেট জেলা ও মহানগর জমিয়তের বিক্ষোভ মিছিল ১৮ সেপ্টেম্বর  » «   ঊর্ধ্বগতি রোধের খোলা বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি  » «   সিরিয়ায় বোমা হামলায় নিহত ১২  » «   সিলেট সফরে যে বিতর্কের জন্ম দেন শোভন  » «   সদ্য পদত্যাগী শোভন-রাব্বানীকে নিয়ে যা ছিল গোয়েন্দা রিপোর্টে  » «   আইনি সব নিয়ম মেনেই ছাত্রদলের কাউন্সিল, সতর্ক বিএনপি  » «   দুর্নীতি রোধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ প্রধানমন্ত্রীর  » «  

সিলেটে কনস্টেবল পদে বাছাইয়ে উত্তীর্ণ ৩৪৮ জন

ফাইল ছবি

আমার বাংলাদেশ অনলাইন ডেস্ক :সিলেটে কনস্টেবল পদে বাছাইয়ে ৩৪৮ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। শারীরিক, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার পর তাদের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। জেলা পুলিশ সূত্র জানিয়েছে- গত ২৯শে জুন সিলেট জেলা পুলিশ লাইন্সে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) নিয়োগের জন্য প্রাথমিক বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। এতে অংশগ্রহণকারী প্রায় সাড়ে ৪ হাজার প্রার্থীর মধ্য থেকে শারীরিক মাপ ও শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রসহ অন্যান্য কাগজপত্র যাচাই-বাছাই শেষে ১ হাজার ৪২১ জন প্রার্থীকে লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য নির্বাচিত করা হয়। জেলা পুলিশ সূত্র জানায়- ৩০শে জুন সিলেট পুলিশ লাইন্স স্কুল ও সরকারি আলীয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে বাছাইকৃত প্রার্থীদের লিখিত পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা, নিরপেক্ষতা ও মেধার ভিত্তিতে লিখিত পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন শেষে গত ৩রা জুলাই জেলা পুলিশ লাইন্সে লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এতে ৪৬৯ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়। একই দিন উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়।
গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অংশগ্রহণকারী পরীক্ষার্থীদের প্রাথমিক বাছাইয়ের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। যার মধ্যে ২৯৭ জন পুরুষ, ৫১ জন নারীসহ মোট ৩৪৮ জন প্রার্থীকে প্রাথমিকভাবে বাছাই করা হয়। পুরুষ কোটায় সাধারণ ২৪২, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ৪২, পোষ্য ৫, আনসার-ভিডিপি ৫, উপজাতি ২ এবং নারী কোটায় সাধারণ ৪৩, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ৬, পোষ্য ১ ও আনসার ভিডিপি ১ জনকে মনোনীত করা হয়। ফলাফল প্রকাশের পর সিলেট জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম বলেন- ‘শতভাগ স্বচ্ছতা, নিরপেক্ষতা ও মেধাভিত্তিক নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ায় শুকরিয়া প্রকাশ করছি’।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

(আমার বাংলাদেশ/ আর : আহমেদ)

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -