শুক্রবার, ৫ জুন ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু” ড. মঈনের পরিবার সরকারের প্রথম ক্ষতিপূরণ পাচ্ছে ৫০ লাখ  » «   চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের দায়ে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র আটক  » «   নবীগঞ্জে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ২০  » «   জগন্নাথপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা আদায়  » «   জগন্নাথপুরে করোনায় পুলিশ ও ব্যাংক কর্মকর্তা আক্রান্ত  » «   কবির আহমদ মুশনের মৃত্যুতে জেলা আ.লীগের শোক  » «   ধর্মপাশায় স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই জমজমাট গরুর হাট  » «   সিলেটে বিজলী’র গতিতে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত সংখ্যা  » «   দৈনিক আমার বাংলাদেশের উপদেষ্টা’গোলাপ মিয়া’কে অভিন্দন  » «   ঈদ উপহারে অনিয়ম হবিগঞ্জের লাখাইয়ে চেয়ারম্যান বরখাস্ত  » «   লকডাউনে সৌদি আরবে! বেড়েছে দ্বিতীয় বিয়ে ও ডিভোর্স  » «   ইয়াবা সহ (১)এক মাদক ব্যাবসায়ীকে আটক করেছে এসএমপি পুলিশ  » «   করোনার ডেঞ্জার জোন হিসাবে আখ্যায়িত হতে যাচ্ছে সিলেট।  » «   থেমে নেই’ছাত্রলীগ সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল”ফারাবি হাসান রাকিব  » «   বিয়ানীবাজারে নতুন শনাক্ত ৫ করোনা রোগীর বাড়ি লকডাউন  » «  

মশারিতে মশা ঢুকিয়ে ছিটানো হলো ওষুধ, তবুও মরলো না!

আমার বাংলাদেশ অনলাইন ডেস্ক :প্রতিদিনই আ’শঙ্কাজনক হারে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। দেশের এমন পরিস্থিতিতে এডিস মশা নিধনের কার্যকর ওষুধ এখনও আনা যায়নি। তবে হাত-পা গুটিয়ে বসে নেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

ইতিমধ্যে একটি বিদেশি ওষুধ সংগ্রহ করেছেন তারা। যা ডেঙ্গু মশা নিধনে কার্যকর ওষুধ বলে বিবেচ্য হবে। তবে এর জন্য তিন ধাপে কয়েকটি টেস্টে উত্তীর্ণ হতে হবে নমুনা ওষুধকে।

শুক্রবার (২ আগস্ট) দুপুরে ডিএসসিসি’র নগর ভবনের বারান্দায় বিশেষজ্ঞদের উপস্থিতিতে ওই ওষুধ কতটা কার্যকর তা পরীক্ষা করে দেখা হয়। প্রথমে ওষুধের নমুনা সংগ্রহ করে দুই বর্গ স্কয়ার ফুটের তিনটি মশারির খাঁচায় ৫০টি করে মশা রাখা হয়। এরপর মাত্র এক হাত দূর থেকে এর চারপাশে একবার করে বিদেশি ওষুধটি ছিটানো হয়।

ফলাফলে দেখা গেল, মাত্র এক হাত দূর থেকে ফগিং (ছিটানো) করার পরও খাঁচায় থাকা মশাগুলো ম’রেনি। মাত্র ২৪ শতাংশ মশা অচেতন অবস্থায় পড়েছিল। তিনটি খাঁচার প্রথমটি ৫০টি মশার মধ্যে ১৩টি, ২য়টিতে ১৪টি এবং তৃতীয়টিতে ৯টি মশা জ্ঞান হা*রিয়েছিল।

প্রথম পরীক্ষায় সন্তুষ্ট না হতে পারলেও জানা গেছে আজ (শনিবার) আবার এই খাঁচাগুলো দেখা হবে। কয়টি মশা ম’রেছে তা গোনা হবে। যদি মৃ’তের সংখ্যা ৮০ শতাংশ হয় তাহলে ধরে নেয়া হবে এই ওষুধের মান ঠিক রয়েছে।

এটাই শেষ নয়, দ্বিতীয় পরীক্ষার জন্য ওষুধের নমুনাটি পাঠানো হবে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) ও খামা’র বাড়ির কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরে। সেখানেও দুটি পরীক্ষায় ওষুধটি উত্তীর্ণ হলে তা ছিটানোর কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া হবে। তবে ওষুধটির প্রথম পরীক্ষার ফলাফলে খুশি হননি সিটি করপোরেশনের শীর্ষ কর্মক’র্তারা।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

(আমার বাংলাদেশ/আর আহমেদ/র১এম/২০১৯/০৮/০২ )

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -