মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   আসছে সিলেট আ.লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি  » «   নারী বিশ্বকাপের জার্সি নিয়েও বিতর্ক  » «   কুলাউড়া থানার এসআই দিদার উল্ল্যাহকে প্রত্যাহার  » «   বানিয়াচংয়ের শহীদ মিনার যেন ময়লার ভাগাড়!  » «   সুনামগঞ্জে মঞ্চস্থ হবে নবশিখার ‘কবর’  » «   সরকারি অগ্রগামী স্কুল এন্ড কলেজে বসন্ত বরণ  » «   সুনামগঞ্জে বিশ্বম্ভরপুরে এক শিশুকে গণধর্ষণ আটক ১  » «   গোলাপগঞ্জে প্রতিপক্ষের উপর হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ১  » «   মেট্রোরেলের মকআপ ঢাকায়, উদ্বোধনের পরই প্রদর্শন  » «   সিলেটে এক গ্রামেই ৪০০ প্রতিবন্ধি  » «   ৩৮ পর্যন্ত ফুটবল খেলতে পারবে মেসি  » «   হিজাব পড়ে মসজিদে মার্কিন ডোনাল্ড ট্রাম্পের কন্যা  » «   জোড়া বোনের একজন অঙ্ক পড়ান, অন্যজন ইংরেজি!  » «   ভারতে হামলার হুমকি  » «  

ফাহিম একজন নিবেদিত প্রাণ, আপাদমস্তক ছাত্রদল নেতা

ফেবু থেকে নেওয়া  :গোলাপগঞ্জে এক সময় প্রচুর উচ্চ শিক্ষিত লোকের বসবাস ছিল এই থানায়। এখনও সেই অতীতের সুনাম অক্ষুন্ন রয়েছে। শুধু সিলেট নয় সারা দেশেই এর ব‍্যাপক পরিচিতি রয়েছে।

গোলাপগঞ্জের ভূমি ছিল কোথাও সমতল কোথাও ছোট ছোট টিলায় সমৃদ্ধ। গোলাপগঞ্জ এক সময় মৌসুমী ফলের জন‍্য সমৃদ্ধ ছিল। গোলাপগঞ্জের উরি মুকি ও মোড়া ছিল খুবই সুস্বাদু।

বাংলাদেশের সাবেক প্রধান বিচারপতি সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ে ছিলেন অসংখ্য দেশ বরেণ্য কীর্তিমান মানুষ।

সুরমা এবং কুশিয়ারা দুটি নদীই এই থানার উপর দিয়ে প্রবাহমান। সুরমা থানা সদরের পাশ দিয়ে এবং কুশিয়ারা হাওরের উপর দিয়ে বয়ে গেছে। দুটি নদীর বৈশিষ্ট ভিন্ন ভিন্ন।

সিলেটের কিংবদন্তি ফুটবলার শফিক ভাই সিলেট আবাহনীর লিয়াকত ভাই এবং ঢাকা মোহামেডান ও জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক নির্ভরযোগ‍্য ডিফেন্ডার রেহানের জন্মও এই থানায়।

আমার কলেজ জীবনের সহপাঠী সিলেট সরকারি কলেজ ছাত্র শিবিরের সাবেক সভাপতি সিলেট মহানগর কমিটির সাবেক সভাপতি ও ঢাকা মহানগর কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মরহুম সুহেল আহমদ চৌধুরীর জন্মও এই থানাতেই।

এই থানার এক সুপরিচিত ব‍্য‍ক্তিত্বের নাম মিছবাউল কাদির ফাহিম।

ফাহিম দক্ষিণ সুরমার ঐতিহ্যবাহী রাখালগঞ্জ স্কুল থেকে এসএসসি এমসি ইন্টারমিডিয়েট কলেজ থেকে উচ্চমাধ‍্যমিক ও বর্তমান এমসি কলেজ থেকে ডিগ্রী সম্পন্ন করে।

বর্তমান সিলেট সরকারি কলেজ থেকে তার সাথে পরিচয় বন্ধুত্ব।

তখন গ্রাম থেকে বা শহর থেকে আসা ছাত্রদের পছন্দ ছিল ছাত্রলীগ ও জাসদ ছাত্রলীগ। ফাহিম ছিল ব‍্যাতিক্রম। সে শুরু থেকে ছাত্রদলকে সংগঠিত করার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছিল। দুই ছাত্রলীগের প্রভাবের কারণে ছাত্রদলের রাজনীতির চর্চা করা ছিল খুবই দুরহ। তার সিনিয়র ছিলেন আরিফুল হক চৌধুরী বদরুদজ্জান সেলিম ভাই। তারাও চেষ্টা করেছিলেন।

সুদর্শন ফাহিম একজন নিবেদিত প্রাণ আপাদমস্তক ছাত্রদল নেতা ছিল।
84 র থেকে তার সাথে যোগাযোগ আমার একেবারে কমে যায়। 1990 সালে সে ছাত্রদলের জেলার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয় সরসরি ভোটের মাধ‍্যমে।
1991 সালে বিএনপি দ্বিতীয় বারের মত ক্ষমতায় আসলে সরকারি দলের নেতা হিসেবে তার গুরুত্ব অনেক বেড়ে যায়। 1991 এবং 2001 এই বার বিএনপি ক্ষমতায় থাকলেও দলের গুরুত্বপূর্ণ নেতা ফাহিম ক্ষমতার দাপট দেখায় নি। তার সাদামাটা জীবন এবং আচার আচরণ অনেককেই আকৃষ্ট করত। সারা সিলেট জেলাতেই ফাহিমের ব‍্যাপক পরিচিত ছিল একজন ত‍্যাগী ও ভাল সংগঠক হিসেবে।

তার জন্মস্থান গোলামগঞ্জের লক্ষীপাশা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের দূর্গ থেকে তার জীবনের প্রথম নির্বাচনে একজন স্থানীয় বাঘা প্রার্থীকে হারিয়ে চমক সৃষ্টি করেছিল অল্প বয়সে। পর পর দুবার লক্ষীপাশার লক্ষী ছেলে ফাহিম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিল।

চেয়ারম্যান হিসেবে তার কর্মতৎপরতা ব‍্যাপক প্রশংসিত হয়েছিল সর্বত্র। তৃতীয় বার এই জননন্দিত জনপ্রতিনিধি আর নির্বাচনে অংশ নেয়নি।
আজ থেকে একশ বছর পরেও ছাত্রলীগের ইতিহাস লেখা হলে যেমন মন্তজির মুকির সরওয়ার হান্নান নওশাদ এনাম এমদাদ সুলতান আমি এবং ছাত্রদলের ইতিহাস লেখা হলে তেমনি ফাহিম মুকিতের নাম লিখা হবে।

আমার বন্ধু ফাহিম দীর্ঘদিন ধরে কানাডায় আছে। দেশকে তার দলকে বন্ধুদেরকে খুব মিস করে।ফাহিমের জন‍্য শুভকামনা রইল। ভাল থাকিস বন্ধু।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

(আমার বাংলাদেশ/রু-আহমেদ/প/ম )

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -