মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   আসছে সিলেট আ.লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি  » «   নারী বিশ্বকাপের জার্সি নিয়েও বিতর্ক  » «   কুলাউড়া থানার এসআই দিদার উল্ল্যাহকে প্রত্যাহার  » «   বানিয়াচংয়ের শহীদ মিনার যেন ময়লার ভাগাড়!  » «   সুনামগঞ্জে মঞ্চস্থ হবে নবশিখার ‘কবর’  » «   সরকারি অগ্রগামী স্কুল এন্ড কলেজে বসন্ত বরণ  » «   সুনামগঞ্জে বিশ্বম্ভরপুরে এক শিশুকে গণধর্ষণ আটক ১  » «   গোলাপগঞ্জে প্রতিপক্ষের উপর হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ১  » «   মেট্রোরেলের মকআপ ঢাকায়, উদ্বোধনের পরই প্রদর্শন  » «   সিলেটে এক গ্রামেই ৪০০ প্রতিবন্ধি  » «   ৩৮ পর্যন্ত ফুটবল খেলতে পারবে মেসি  » «   হিজাব পড়ে মসজিদে মার্কিন ডোনাল্ড ট্রাম্পের কন্যা  » «   জোড়া বোনের একজন অঙ্ক পড়ান, অন্যজন ইংরেজি!  » «   ভারতে হামলার হুমকি  » «  

সিলেটে বসন্ত ও ভালোবাসা দিবসকে রাঙাতে ফুলের বাজার

আমার বাংলাদেশ অনলাইন ডেস্ক :বাঙালির বিশেষ দু’দিন, একটি বসন্ত আরেকটি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। বাঙালির বসন্ত উৎসব শেষে হতে না হতে পর দিন ভালোবাসা দিবস। ভালোবাসা দিবসের একদিন আগেই বসন্তের শুরু। ঋতুরাজ বসন্ত ও ভালোবাসা দিবসকে রাঙাতে কতই না আয়োজন, যার মূল অনুসঙ্গ রঙ-বেরঙের ফুল।

সারাদেশের মতো সিলেটেও দেখা যায় বসন্ত উৎসব পালন ও ভালোবাসা দিবস উদযাপন করতে। সেই সুবাধে অনেকেই বসন্ত বরণ উপলক্ষ্যে আগে থেকেই কিনে রেখে দিচ্ছেন গোলাপ, বেলি, গাঁদা জিপসি ফুলের টায়রাসহ বসন্তের সাজ সজ্জার লাল, হলুদ ও বাসন্তি রঙের শাড়ি।

বুধবার বিকেলে নগরীর জিন্দাবাজর,চৌহট্রা পয়েন্ট,জেলরোড পয়েন্টসহ বিভিন্ন ফুলের দোকানগুলোতে ঘুরে দেখা যায় আগে থেকেই ফুলের দোকানে ভিড় জমাচ্ছেন ক্রেতারা।

এখানকার বেশিরভাগ ফুল ব্যবসায়ীরা ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ফুল আমদানী করে বিক্রি করে থাকেন। বসন্ত বরণ ভালোবাসা দিবস ও আন্তর্জাতিক মার্তভাষা দিবসকে কেন্দ্র করে ফুল ব্যবসায়ীরা ইতি মধ্যে ফুল চাষী ও পাইকারী ব্যবসায়ীদের কাছে অগ্রীম অর্ডার করে রেখে দিয়েছেন।

ফুল দোকানিরা জানান, সাধারণ দিনগুলোতে গোলাপ ১০ থেকে ১৫ টাকা প্রতি পিস বিক্রি হলেও শেষ দিনগুলোতে গোলাপ সর্বনিম্ন ২০-৪০টাকা বিক্রি হয়। তবে একশত পিস ৯০০-৯৫০টাকায় বিক্রি করছেন যা একসপ্তাহ আগে ছিলো ৪০০-৪৫০ টাকা। রজনীগন্ধার স্টিক ১০-২০ টাকা, ফুলের তোড়া সর্বনিম্ন সাড়ে ৩শ’ থেকে ১ হাজার টাকা, জারবেরা ২০ থেকে ৩০ টাকা। স্বাভাবিক দিনে প্রতিটি প্রতি হাজার গাঁদা ফুল ২০০-৪০০ টাকায় বিক্রি হলেও বিশেষ দিনগুলোতে ৫০০-৮০০টাকা ছাড়িয়ে যায়। জারবেরা ফুলগুলোর মধ্যে গাড়ো রঙেরগুলো মানুষের বেশি পছন্দের। এসব ফুল স্বাভবিক দিনে প্রতিটি ২০ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি হলেও ৫০ টাকা দরে বিক্রি হয় বিশেষ দিন গুলোতে।

নগরীর জেলরোড পয়েন্টের মাধুরী পুষ্পালয় এন্ড সাজ ঘরের প্রোপাইটার মো.মনিরুল ইসলাম মনির জানান এখন অব্দি বাজারের ক্রেতাদের খুব একটা আনাগোন নেই তবে আশা করছি কাল সকাল থেকে ক্রেতাদের সমাগন বাড়বে।

গোলাপ পুষ্প বিতানের কর্মকর্তা রিফাত জানান,অন্যান্য বছরের তুলনায় বাজারে ক্রেতা কম দেখা যাচ্ছে। বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি বসন্তবরণ উৎসব, পরদিন ভালবাসা দিবস আর ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস সামনে রেখে বেচাকেনা বেড়ে যায়

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

(আমার বাংলাদেশ/রু-আহমেদ/প/ম )

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -