সোমবার, ১০ অগাস্ট ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
সিলেটে আলোচিত ট্রাফিক সার্জেন্ট চয়ন নাইডু সাময়িক বহিষ্কার  » «   উত্তপ্ত বৈরুত, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দখল  » «   একাদশে ভর্তির আবেদন শুরু আজ  » «   সাংবাদিক আলাউদ্দিন হেলালের মুত্যৃ  » «   করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অর্থ দিচ্ছে ফেসবুক  » «   বঙ্গমাতা ত্যাগের দৃষ্টান্ত দেখিয়ে গেছেন  » «   ঈদ শেষে রাজধানীতে ফিরছে মানুষ  » «   শনিবারও চলছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে মামলার শুনানি  » «   মাসব্যাপী বিনামূল্যে ডেঙ্গু পরীক্ষা আজ শুরু  » «   বাবা-মা সহ মাশরাফির পরিবারের চার সদস্য করোনায় আক্রান্ত  » «   ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে মিললো দুই ব্যক্তির মরদেহ  » «   পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোতে বন্দুকধারীদের হামলা, নিহত ২০  » «   পর্যটন কেন্দ্রগুলোর ভিড় দেখে সংক্রমণের আতঙ্কে স্থানীয়রা  » «   বাবার সাথে মেসির তুলনা করা যাবে না-ম্যারাডোনার ছেলে  » «   রোনালদোর জোড়া গোলে তবু জুভেন্টাসের বিদায়  » «  

ওসমানীনগরে জ্বর-সর্দির প্রকোপ একমাস ধরে নমুনা সংগ্রহ বন্ধ

Sharing is caring!

ওসমানীনগর প্রতিনিধি (সিলেট);;  সিলেটের ওসমানীনগরবাসীর স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে চরম অবহেলা শুরু করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। ভবন সংস্কারের নামে ১ মাস ধরে বন্ধ।রয়েছে উপজেলার একমাত্র নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্র। এদিকে ইতোমধ্যে উপজেলায় ৪৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৪ জন।

জানা যায়, গত ১৯ এপ্রিল থেকে ওসমানীনগরে উপজেলা পর্যায়ে নমুনা সংগ্রহ শুরু হলে ১০ জুন পর্যন্ত ৫২ দিনে মাত্র ২২৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এরপর থেকে ভবন সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজের জন্য বন্ধ রয়েছে উপজেলার একমাত্র নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্র তাজপুরের কদমতলাস্থ ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র।

৩০ জুন পর্যন্ত নমুনা সংগ্রহ বন্ধ থাকবে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানানো হয়। কিন্তু একমাসেও নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্র পুণরায় চালু হয়নি। করোনার এই দুর্যোগকালিন সময়ে বিকল্প উপায়ে নমুনা সংগ্রহের ব্যবস্থা না করে নমুনা সংগ্রহের সেন্টার বন্ধ হওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। এদিকে উপজেলার সর্বত্র ভাইরাল জ্বরের প্রকোপ  দেখা দিয়েছে।

ফলে জনমনে আতঙ্ক বেড়েই চলেছে।অনেকেই বলছেন উপজেলার ৩ লক্ষাধিক মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে ‘ছেলেখেলায়’ মেতেছে সংশ্লিষ্ট বিভাগ। ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দাল মিয়া বলেন, ‘করোনা সংকটকালে স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সংস্কারটা জরুরী ছিলো না। এরমধ্যে এলাকার অনেক গ্রামে জ্বর-সর্দির প্রকোপ দেখা দিয়েছে।এমন পরিস্থিতিতে কারো মধ্যে করোনা উপসর্গ দেখা দিলে তাকে বালাগঞ্জ অথবা
সিলেটে গিয়ে নমুনা প্রদান করতে হচ্ছে।এতে অনেক বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে।

ওসমানীনগরে দ্রুততার সাথে করোনার নমুনা সংগ্রহ পুণরায় চালু করা প্রয়োজনীয়।উপজেলা স্বাস্থ্য
কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানা যায়,তাজপুর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে দরজা জানালা মেরামত, টাইলস ফিটিং, রাস্তা সংস্কার, বুথ স্থাপন ও রঙের কাজ করানো হচ্ছে। ৩০ জুনের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও এখনো সংস্কার কাজ চলছে। বালাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ওসমানীনগরে অতিরিক্ত দায়িত্ব) ডা. এসএম শাহরিয়ার বলেন, ্#৩৯;সংস্কার কাজের জন্য তাজপুর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে

গত ১০ জুন থেকে করোনার নমুনা সংগ্রহ করা বন্ধ রয়েছে। ৩০ জুনের মধ্যে সংস্কার শেষ না হওয়ায় পুণরায় নমুনা সংগ্রহ শুরু হয়নি। ওসমানীনগরের বাসিন্দাদের অনেকেই সরকার নির্ধারিত ফিস দিয়ে বালাগঞ্জ হাসপাতালে নমুনা প্রদান করছেন।সিলেটের সিভিল সার্জন প্রেমানন্দ মন্ডল বলেন,ভবন সংস্কারের জন্য তাজপুর
উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে করোনার নমুনা সংগ্রহ বন্ধ রয়েছে।

বিকল্প উপায়ে নমুনা সংগ্রহের চেষ্টা করা হয়েছিলে কিন্তু ভবন পাওয়া যায়নি। সংস্কার দ্রুত শেষ করার জন্য নিয়মিত তাগিদ দেওয়া হচ্ছে। আশা করছি আগামী ১৫ জুলাইয়ের আগেই কাজ শেষ করে কেন্দ্র
পুনরায় চালু করা হবে।

 (আমার বাংলাদেশ/কাআহমেদ// )

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

Sharing is caring!

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -