মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
পদত্যাগের ঘোষণা দিলো লেবানন সরকার  » «   শোক দিবসে দেশের সব মসজিদে মসজিদে বিশেষ দোয়া  » «   বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্বনেতা”ড. হাছান মাহমুদ  » «   সিনহার গায়েব হওয়া ক্যামেরা-ল্যাপটপে কী ছিল  » «   স্বাভাবিক নিয়মে নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু  » «   দুই কর্মকর্তার ছায়ায় ছিলেন প্রদীপ  » «   ভয়াবহ বিস্ফোরণে উড়ে গেল বাড়ি  » «   শুভ জন্মাষ্টমী আজ  » «   সিলেটে আলোচিত ট্রাফিক সার্জেন্ট চয়ন নাইডু সাময়িক বহিষ্কার  » «   উত্তপ্ত বৈরুত, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দখল  » «   একাদশে ভর্তির আবেদন শুরু আজ  » «   সাংবাদিক আলাউদ্দিন হেলালের মুত্যৃ  » «   করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অর্থ দিচ্ছে ফেসবুক  » «   বঙ্গমাতা ত্যাগের দৃষ্টান্ত দেখিয়ে গেছেন  » «   ঈদ শেষে রাজধানীতে ফিরছে মানুষ  » «  

জুন মাসের বেতন পাননি ৪৬১ কারখানার শ্রমিকরা

Sharing is caring!

আমার বাংলাদেশ অনলাইন ডেস্ক :পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সদস্যভুক্ত ১ হাজার ৯২৬টি তৈরি পোশাক কারখানা বর্তমানে চালু রয়েছে।

এর মধ্যে ১ হাজার ৪৬৫টির মালিক তাদের শ্রমিকদের জুন মাসের বেতন-ভাতা পরিশোধ করেছেন।

অবশিষ্ট ৪৬১টি কারখানার শ্রমিকরা এখনো জুন মাসের বেতন-ভাতা পাননি। গতকাল শুক্রবার বিজিএমইএ সূত্রে এ তথ্য জানা গছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, তহবিল থেকে ঋণ পেতে এরই মধ্যে বিজিএমইএর সদস্যভুক্ত ১ হাজার ৩৭০টি এবং বিকেএমইএর সদস্য ৫১৯টি কারখানার মালিক আবেদন করেছেন। এর মধ্যে বিভিন্ন কারণে বিকেএমইএর ৯৯ সদস্যের আবেদন বাতিল হয়েছে।

যদিও ৫ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজের সিংহভাগ অর্থই ঋণ হিসেবে পেয়েছেন পোশাকশিল্পের মালিকরা।

ফলে দুই মাস ধরে শ্রমিকদের বড় একটি অংশের মজুরি হচ্ছে প্রণোদনার টাকায়।বিজিএমইএর তথ্য অনুযায়ী, গত ১৬ জুলাই পর্যন্ত তাদের সদস্যভুক্ত ১ হাজার ৯২৬টি কারখানার মধ্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় রয়েছে ৩৩৩টি।

এর মধ্যে জুন মাসের বেতন-ভাতা দিয়েছে ২৬০টি প্রতিষ্ঠান।

গাজীপুরের ৭১৩টি কারখানার মধ্যে বেতন দিয়েছে ৫৭৬টি, সাভার-আশুলিয়ায় ৪১২টি কারখানার মধ্যে বেতন দিয়েছে ৩২৩টি, নারায়ণগঞ্জের ১৯৮টি কারখানার মধ্যে বেতন দিয়েছে ১৫৭টি, চট্টগ্রামের ২৫২টি কারখানার মধ্যে ১৩৫টি এবং প্রত্যন্ত এলাকার ১৮টি কারখানার মধ্যে ১৪টি প্রতিষ্ঠান তাদের শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ করেছে।

সব মিলিয়ে জুন মাসের বেতন-ভাতা পরিশোধ করেছে চালু থাকা ৭৬ শতাংশ অর্থাৎ ১ হাজার ৪৬৫টি প্রতিষ্ঠানের মালিক। তবে এখনো ৪৬১টি অর্থাৎ ২৪ শতাংশ কারখানার মালিক তাদের শ্রমিকদের জুনের বেতন-ভাতা পরিশোধ করেননি।

এরই মধ্যে করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে রপ্তানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানের বেতন-ভাতা পরিশোধ করতে ৫ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

উৎপাদনের ন্যূনতম ৮০ শতাংশ পণ্য রপ্তানি করছে এমন সচল প্রতিষ্ঠান ওই প্যাকেজ থেকে সুদবিহীন সর্বোচ্চ ২ শতাংশ হারে সার্ভিস চার্জ দিয়ে ঋণ নিতে পারছে।

তবে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের ফলে চলমান সংকটে শ্রমিক-কর্মচারীদের আরো তিন মাসের বেতন-ভাতা দেওয়ার জন্য বিশেষ ঋণ চেয়েছেন পোশাক শিল্পের মালিকরা।

বিষয়টি নিয়ে সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে চিঠি দেয় বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ।

এসব বিষয়ে বিজিএমইএর স্ট্যান্ডিং বডির চেয়ারম্যান (মিডিয়া) মনিরুল আলম শুভ বলেন, যেসব কারখানায় এখনো জুন মাসের বেতন হয়নি তা এই মাসের মধ্যেই হবে।

অচিরেই আমাদের সদস্যভুক্ত সব কারখানায় বেতন-ভাতা পরিশোধ হয়ে যাবে বলে আশা করছি।

(আমার বাংলাদেশ/কাআহমেদ// )

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

Sharing is caring!

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -