রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
জেলখানায় প্রেম সমকামিতা  » «   বাংলাদেশ সফরে যুক্তরাষ্ট্রের ৫ সিনেটর  » «   সিলেটে যে লড়াইয়ে কামরান-মিসবাহ  » «   গোলাপগঞ্জের ফাজিলপুরে সড়কবাতির উদ্বোধন  » «   সিলেটে গতিরোধক বাঁধ নাগরিক বিড়ম্বনার নাম  » «   হবিগঞ্জে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, রাস্তার বেহাল দশা  » «   গোলাপগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি গঠন  » «   আলখাজা মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত  » «   পরিকল্পনা মন্ত্রী মান্নানকে জেলা উশু এসোসিয়েশনের ফুলেল শুভেচ্ছা  » «   জগন্নাথপুরে শেখ রাসেলের জন্ম বার্ষিকী পালন  » «   জগন্নাথপুরে এক দিনে ২ হত্যাকা- নিয়ে চাঞ্চল্য ও আতঙ্ক  » «   প্রিন্সিপাল মাওলানা হাবীবুর রহমান: একটি বিপ্লবী কন্ঠের চির বিদায়  » «   আজমিরীগঞ্জ পৌর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে শুরু হলো কাউন্সিলর আফতাব ফুটবল টুর্নামেন্ট  » «   অছাত্র মিঠুর দৌরাত্ম্য সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের বেহাল অবস্থা  » «  

প্রিয়াংকা গান্ধীর অনুপ্রেরণা শেখ হাসিনা

আমার বাংলাদেশ অনলাইন ডেস্ক :প্রিয়াংকা গান্ধী বলেছেন, শেখ হাসিনার বৈশিষ্ট্য হলো তিনি যা বিশ্বাস করেন সেটির জন্য সাহস ও অধ্যবসায়ের সঙ্গে লড়াই করা। তিনি টুইটারে আরোও  লিখেছেন, ‘শেখ হাসিনাজির কাছ থেকে প্রতীক্ষিত আলিঙ্গন পেলাম। দীর্ঘদিন ধরে তার সঙ্গে পুনরায় সাক্ষাতের অপেক্ষায় ছিলাম। স্বজন হারানো ও প্রতিকূলতা মোকাবিলায় তার শক্তি এবং যা বিশ্বাস করেন সেটির জন্য সাহস ও অধ্যবসায়ের সঙ্গে লড়াইয়ের কারণে তিনি সব সময় আমার কাছে বড় ধরনের অনুপ্রেরণা।’

এর আগে কংগ্রেস নেতারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাতে কংগ্রেস নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী, প্রিয়াংকা গান্ধী ও আনন্দ শর্মা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, উভয় দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করতে কংগ্রেস নেতারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলোচনা করেছেন।

চার দিনের সফরে ভারত অবস্থান করছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনিই বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি ক্ষমতায় থাকা নেতা। ২০০৯ সালে দ্বিতীয়বার যখন ক্ষমতায় ছিলেন তখন ভারতের কেন্দ্রে ছিল কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ সরকার। ২০১১ সালে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বাংলাদেশ সফর করেছিলেন মনমোহন সিং।

শনিবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেছেন শেখ হাসিনা। দু’দেশের প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকের পর এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদি (শেখ হাসিনাকে) অবহিত করেছেন যে তার সরকার ভারতে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে নিয়ে সম্ভাব্য দ্রুততম সময়ে চুক্তিটি সম্পাদনের জন্য কাজ করছে।’

‘২০১১ সালে দুই সরকারের সম্মতি অনুযায়ী তিস্তা নদীর পানি বণ্টনে ফ্রেমওয়ার্ক অব ইন্টেরিম এগ্রিমেন্ট আশু স্বাক্ষর ও বাস্তবায়ন’-এর জন্য বাংলাদেশের জনগণ অপেক্ষায় রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন মন্তব্যের প্রেক্ষিতে দ্রুততম সময়ে তিস্তা চুক্তির আশাবাদ ব্যক্ত করেন মোদি।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

(আমার বাংলাদেশ/জা-আহমেদ/র/৮/এ/ম )

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -