রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
জেলখানায় প্রেম সমকামিতা  » «   বাংলাদেশ সফরে যুক্তরাষ্ট্রের ৫ সিনেটর  » «   সিলেটে যে লড়াইয়ে কামরান-মিসবাহ  » «   গোলাপগঞ্জের ফাজিলপুরে সড়কবাতির উদ্বোধন  » «   সিলেটে গতিরোধক বাঁধ নাগরিক বিড়ম্বনার নাম  » «   হবিগঞ্জে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, রাস্তার বেহাল দশা  » «   গোলাপগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি গঠন  » «   আলখাজা মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত  » «   পরিকল্পনা মন্ত্রী মান্নানকে জেলা উশু এসোসিয়েশনের ফুলেল শুভেচ্ছা  » «   জগন্নাথপুরে শেখ রাসেলের জন্ম বার্ষিকী পালন  » «   জগন্নাথপুরে এক দিনে ২ হত্যাকা- নিয়ে চাঞ্চল্য ও আতঙ্ক  » «   প্রিন্সিপাল মাওলানা হাবীবুর রহমান: একটি বিপ্লবী কন্ঠের চির বিদায়  » «   আজমিরীগঞ্জ পৌর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে শুরু হলো কাউন্সিলর আফতাব ফুটবল টুর্নামেন্ট  » «   অছাত্র মিঠুর দৌরাত্ম্য সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের বেহাল অবস্থা  » «  

প্রায় ত্রিশ ঘণ্টার পর ক্যাম্পাসে বুয়েট ভিসি

আমার বাংলাদেশ অনলাইন ডেস্ক :বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার প্রায় ত্রিশ ঘণ্টারও পর ক্যাম্পাসে উপস্থিত হন উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম। বর্তমানে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন ও বিভাগীয় কয়েকজন চেয়ারম্যানদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করছেন।

এদিকে শিক্ষার্থীরা মূল ফটকে তালা দিয়ে ভিসি কার্যালয় ঘিরে অবস্থান করছেন। ভিসির সঙ্গে শিক্ষার্থীদের কথার এক পর্যায়ে ভিসি তাদের সকল দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস দেন।

এসময় ভিসি বলেন, আমি তোমাদের সব দাবিগুলো প্রাথমিক ভাবে মেনে নিয়েছি। আমি সরকারের বাহিরে কাজ করতে পারি না। আমি তোমাদের দাবিগুলো সরকারকে জানাবো এরপর আমাকে যে নির্দেশ দেয়া হবে সেই বিষয়ে তোমাদের সাথে কথা বলবো।

তিনি আরও বলেন, আমি সারাদিন মন্ত্রী মহোদয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি, মিটিং করেছি। এগুলো না করলে দাবিগুলোর সমাধান হবে কীভাবে। সব তো আমার হাতে নেই।এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের আলাদা ডেকে নিয়ে কথা বলার প্রস্তাব দিলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন।

এদিকে আবরার ফাহাদ হত্যার বিচার দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে তারা এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এসময় তারা আট দফা দাবি উত্থাপন করেন।

শিক্ষার্থীদের আট দফা দাবি হলো

১. খুনীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

২. ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নিশ্চিতভাবে শনাক্তকৃত খুনীদের সকলের ছাত্রত্ব আজীবন বহিষ্কার নিশ্চিত করতে হবে।

৩. দায়েরকৃত মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের অধীনে স্বল্পতম সময়ে নিষ্পত্তি করতে হবে।

৪. বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি কেন ৩০ ঘণ্টা অতিবাহিত হওয়ার পরও ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়নি তা তাকে সশরীরে ক্যাম্পাসে এসে আজ বিকেল পাঁচটার মধ্যে জবাবদিহি করতে হবে। একই সঙ্গে ডিএসডব্লিউ স্যার কেন ঘটনাস্থল থেকে পলায়ন করেছেন তা উনাকে আজ বিকেল পাঁচটার মধ্যে সকলের সামনে জবাবদিহি করতে হবে।

৫. আবাসিক হলগুলোতে র‍্যাগের নামে এবং ভিন্ন মতাবলম্বীদের ওপর সকল প্রকার শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনকে জড়িত সকলের ছাত্রত্ব বাতিল করতে হবে। একইসঙ্গে আহসানউল্লাহ হল এবং সোহরাওয়ার্দী হলের পূর্বের ঘটনাগুলোতে জড়িত সকলের ছাত্রত্ব বাতিল ১১ নভেম্বর, ২০১৯ তারিখ বিকেল পাঁচটার মধ্যে নিশ্চিত করতে হবে।

৬. রাজনৈতিক ক্ষমতা ব্যবহার করে আবাসিক হল থেকে ছাত্র উৎখাতের ব্যাপারে অজ্ঞ থাকা এবং ছাত্রদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হওয়ায় শেরে বাংলা হলের প্রভোস্টকে ১১ নভেম্বর, ২০১৯ তারিখ বিকেল পাঁচটার মধ্যে প্রত্যাহার করতে হবে।

৭. মামলা চলাকালীন সকল খরচ এবং আবরারের পরিবারের সকল ক্ষতিপূরণ বুয়েট প্রশাসনকে বহন করতে হবে।

৮. সাংগঠনিকভাবে বুয়েট থেকে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে।

উল্লেখ্য, গত রোববার দিবাগত রাত তিনটার দিকে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জানা যায়, ওই রাতেই হলটির ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পেটান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

(আমার বাংলাদেশ/রু-আহমেদ/ম/৬/প/ম )

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -