শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
দরিদ্র্যতা কমাতে ধনীরা গরিবদের বিয়ে করুন: ইন্দোনেশিয়ার মন্ত্রী  » «   তাহিরপুরে সংস্কার হচ্ছে না শহিদমিনার  » «   শাবিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহিদ দিবস পালিত  » «   ৬৮ বছরেও হয়নি ভাষা সংগ্রামীদের তালিকা  » «   সুনামগঞ্জে প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   গোলাপগঞ্জে একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা  » «   গোয়াইনঘাটে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি  » «   সিলেট জেলা ছাত্রদলের ৫ সাংগঠনিক টিম গঠন  » «   শ্রদ্ধার ফুল হাতে সিলেট শহীদ মিনারে মানুষের ঢল  » «   প্রেমিকের সাথে হোটেলে প্রবাসীর স্ত্রী, জেল-জরিমানা  » «   এই প্রথম ইংল্যান্ড দলে একসাথে ৩ মুসলিম ক্রিকেটার  » «   আমি উধাও হইনি, দেশেই আছি : বুবলী  » «   জাতীয় দলে ডাক পেলেন মেহেরপুরের সোহাস  » «   প্রেমিকাকে ৮৭ লাখ টাকা হাতখরচ দেন রোনালদো  » «   শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন  » «  

কলাপাতা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করেছে স্কুল শিক্ষার্থী, ডাক পড়লো নাসায়

আমার বাংলাদেশ অনলাইন ডেস্ক :ভারতের ভাগলপুরে কলাপাতা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে রী’তিমতো তা’ক লাগিয়ে দিয়েছেন এক শিক্ষার্থী। এখন তার ডাক পড়েছে নাসায়।গোপাল নামের এই শিক্ষার্থী দশম শ্রেণিতে পড়ে। ফেলে দেয়া কলাপাতা কিংবা কলাগাছের কা’ণ্ড থেকে বিদ্যুৎ তৈরি করতে পারে গোপাল। জ্বা’লাতে পারে আলো।

তার এসব আবিষ্কারের গল্প দেশ ছা’ড়িয়ে এখন বিদেশের মাটিতেও ছ’ড়িয়ে পড়েছে। তবে দেশের জন্য কাজ করতে চায় গোপাল। গোপাল শুধু একজন গবেষক হিসেবেই পরিচিত নয়, বিভিন্ন জায়গায় উৎসাহমূলক বক্তৃতা দেয়ার জন্যও নিয়ে যাওয়া হয়। তার হাতে দুটি আবিষ্কারের পেটেন্টও রয়েছে। স্কুলে থাকতেই তার এসব আবিষ্কার তা’ক লাগিয়ে দিয়েছিল অনেককে।

ভাগলপুরের প্রত্য’ন্ত এলাকার ছেলে গোপাল। বাবা পেশায় কৃষক। চার ভাইবোনকে নিয়ে সংসার। সরকারি স্কুলেই পড়াশোনা করেছে। কিছু দিন আগেই তাইপেইতে এক এক্সিবিশনে ১০ দেশের স্টা’র্টআ’প সংস্থাকে ডাকা হয়। সেখানে আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন গোপাল।

ক্লাস টেনে পড়তেই ই’ন্সপা’য়ার অ্যাও’য়ার্ড (Inspire Award) পায় সে। ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মু’খোমু’খি হয় গোপাল। ৫-১০ মিনিট কথা হয় দুজনের। সেখান থেকে তাকে আহমেদাবাদের জাতীয় উদ্ভা’বন ফাউন্ডেশনে (National Innovation Foundation) কাজ করার সুযোগ দেয়া হয়। সেখানে ৩-৪ রকমের আবিষ্কারের কাজে হাত লা’গান তিনি।

এমনকি আমেরিকা থেকেও বিজ্ঞানীরা এসে দেখা করে গেছে এই খুদে বিজ্ঞানীর সঙ্গে। আর সে এখন ডা’ক পেয়েছে নাসা থেকেও। এখন স্কুল পড়ুয়াদের বিজ্ঞানের আবিষ্কারে উৎসাহ দেয়ার জন্য বক্তৃতা দিচ্ছে গোপাল। বি টেক পড়ার পাশাপাশি, আবিষ্কারের কাজও চলছে। ভবিষ্যতে পিএইচডি করার ইচ্ছে আছে তার।তথ্যসূত্র: কলকাতা২৪

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে(লাইনে) ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

(আমার বাংলাদেশ/রু-আহমেদ/প/ম )

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: -